মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইন্দুরকানীতে স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অপ-প্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন পিরোজপুরে জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান যুব ঐক্য পরিষদের আয়োজনে বৃক্ষরোপন সাহারা খাতুন আর নেই জামায়াত পরিবারের সন্তান এখন সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন মঠবাড়িয়ায় এমপির বিরুদ্ধে মানববন্ধন : আয়োজনে ছিল এমপির আপন ভাইও পিরোজপুরে যুব মহিলালীগের ১৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত নাজিরপুরে রাস্তার পাশের সরকারি গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ ভান্ডারিয়ায় আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর ঘরে ফাটল : রাজাকার পুত্রকে সদস্য সচিব করার জেপি’র ৮ নেতার পদত্যাগ বাবা’র হত্যাকারী ছাত্রলীগ নেতাদের বিচার দাবী জানিয়ে সন্তানদের আর্তনাদ (ভিডিও) পিরোজপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যক্তির মৃত্যু

ইন্দুরকানী হাসপাতালের পরিচ্ছন্ন কর্মী ও আয়ার ভূলে নবজাতকের মৃত্যু : প্রসূতির অবস্থা সংকটাপন্ন

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২৭ জুন, ২০২০
  • ১৯ Time View

ইন্দুরকানী প্রতিনিধি :  পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও আয়া ভুলে অতিরিক্ত ওষুধ প্রয়োগের মাধ্যমে এক নবজাতকের মৃত্যু ও প্রসূতির অবস্থা সংকটাপন্ন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুরুতর অসুস্থ প্রসুতি রোকসানা বেগম (৩৫) ইন্দুরকানী উপজেলার ভবানিপুরর গ্রামের সুপারি ব্যবসায়ী মোতালেব হোসেনে স্ত্রী।
সুপারি ব্যবসায়ী মোতালেব অভিযোগ করে বলেন, আমার স্ত্রী রেকসোনা বেগম গর্ববতী। তার সন্তান প্রসবের জন্য যেন ইন্দুরকানী হাসপাতালের আয়া কহিনুর বেগমকে ডাকা হয় সে জন্য কহিনুর দীর্ঘ দিন ধরে অনুরোধ করেছে আমাকে। তাই গত রোববার রাতে আমার স্ত্রীর প্রসব বেদনা উঠলে কহিনুরকে জানাই। তবে আমার চাচীকে তার সাথে থেকে সহযোগিতার জন্য অনুরোধ করি। কিন্তু কহিনুর আমার বাড়িতে গিয়ে সে আবার ফিরে এসে হাপাতালের এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী পারভিন বেগমকে অনেকগুলো ওষুধসহ নিয়ে যায়। তারা আমার স্ত্রীর ঘরে প্রবেশ করে সবাইকে বের করে দেয়। তাদের ইচ্ছামত ইনজেকশন দিতে থাকে আমার স্ত্রীকে। এক পর্যায়ে সন্তান প্রসবের সময় হওয়ার আগেই জোর করে অনেক শক্তি প্রয়োগে পুত্র সন্তাননের প্রসব ঘটায়। এর পরেই আমার স্ত্রী ও সন্তান অসুস্থ হয় পড়ে। তখন রাতেই ইন্দুরকানী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ আমিন উল ইসলাম বলেন কি করছেন আপনাকে এখন এরেস্ট করানো দরকার । পরে অবস্থা খারাপ দেখে দ্রুত পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলেন । পথে মধ্যেই সন্তান মারা যায়। পরের দিন পরের দিন গত সোমবার মুমূর্শ অবস্থায় স্ত্রীকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করি। তার অবস্থা শংকটাপন্ন। মোতালেব আরো বলেন,আমার ৪টি কন্যা সন্তান রয়েছে । এবার একটি পুত্র সন্তান হলো তাও আবার ভুল চিকিৎসায় মারা গেল ।
এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিছন্ন কর্মি পারভিন জানান, আমি ডেলিভারি করিয়ে চলে আসছি। পরে শুনছি নাকি বাচ্চা মারা গেছে । এ বিষয় আমি কিছু জানি না ।
এ বিষয় অভিযুক্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়া কহিনুর এ ঘটনার কিছ্ইু জানেন না বলে জানান। কথায় এক পর্যায় তিনি সন্তান প্রসবের সময় উপস্থিত ছিলেন বলে স্বীকার করেন । তবে তিনি প্রসূতি বিদ্যায় পারদর্শী নন বলেও জানান।

ইন্দুরকানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত মেডিকেল অফিসার মোঃ আমিন উল ইসলাম জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়া কহিনুর ও পরিছন্ন কর্মী পারভিন এর ভুলের কারনে প্রসবিত পুত্র সন্তানটির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পেয়েছি । তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com