মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সুপারের ইচ্ছামতো চলে নলী জয়নগর কাদেরিয়া দাখিল মাদরাসা শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে পিরোজপুরে স্বেচ্ছাসেবকলীগের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ নাজিরপুরে ট্রাক ভর্তি লোহার কাঁচামাল ছিনতাই : গ্রেপ্তার-৩ পিরোজপুরে বৈদ্যুতিক মিটার চুরি : গ্রেপ্তার-১ পুলিশের ডিআইজি হিসেবে পদন্নোতি পেয়েছেন পিরোজপুর এর কৃতি সন্তান এ কে এম এহসান উল্লাহ্ পিরোজপুরে তিন ছেলের বিরুদ্ধে প্রতারনায় মায়ের জমি আত্মসাতের অভিযোগ পিরোজপুরে চেক জালিয়াতি মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার ৪র্থ বারের মতো যুক্তরাজ্যের রামসগেটের মেয়র হলেন পিরোজপুরের পুত্রবধূ রওশন আরা দোলন কেন্দ্রীয় যুবলীগ চেয়ারম্যান ও তার সহধধর্মীনির আশু রোগমুক্তি কামনায় পিরোজপুরে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল কেন্দ্রীয় যুবলীগ চেয়ারম্যান ও তার সহধর্মীনির আশু রোগমুক্তি কামনায় পিরোজপুরে দোয়া ও ইফতার মাহফিল

পুলিশের ডিআইজি হিসেবে পদন্নোতি পেয়েছেন পিরোজপুর এর কৃতি সন্তান এ কে এম এহসান উল্লাহ্

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ৪৫ Time View

পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) হিসেবে পদন্নোতি পেয়েছেন পিরোজপুর এর কৃতি সন্তান এডিশনাল (ডিআইজি) এ কে এম এহসান উল্লাহ্। পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি), তৃতীয় গ্রেডে ৩৪ জনকে পদোন্নতি দিতে যাচ্ছে সরকার। মঙ্গলবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের (এসএসবি) বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে ওই ৩৪ জনকে পদোন্নতির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এ কে এম এহসান উল্লাহ্্ বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজি কার্যলয়ে অতিরিক্ত উপ পুলিশ মহাপরিদর্শক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন। তিনি বিসিএস ২০ তম ব্যাচের গ্রেডশন ২১৪। এ কে এম এহসান উল্লাহ্্ এর পিতা এ কেএম আমানউল্লাহ ডালিম ছিলেন একজন ম্যাজিষ্ট্রেট। তার বাড়ি পিরোজপুর শহরের পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডে হাসপাতাল সড়কে। এ কে এম এহসান উল্লাহ্ এর দাদা আব্দুস সোবাহান ছিলেন পিরোজপুরের তৎকালীন মহকুমা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বিশিষ্ট আইনজীবী আবদুস সোবাহানের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠতা ছিল। তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর। ১৯৪৮ সালে রোজ গার্ডেনে আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠিত হলে আবদুস সোবাহান পিরোজপুর মহকুমার প্রতিনিধি হিসেবে এই সম্মেলনে যোগ দেন। বঙ্গবন্ধু দক্ষিণাঞ্চল সফরে এলে পিরোজপুরের হাসপাতাল সড়কে ‘সোবাহান মঞ্জিল’ নামক দ্বিতল ভবনে অবস্থান করতেন। এই বাড়িতে জাতির জনক ১৯৫৪ সালে যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন কালে, ১৯৫৬ সালে ও ১৯৭০ সালে নির্বাচনে সফরের সময় অবস্থান করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত প্রতি বছর ডিআইজি পদে পদোন্নতি হয়। এরপর গত প্রায় দেড় বছর এই পদে (ডিআইজি) কোনো পদোন্নতি হয়নি। সর্বশেষ পদোন্নতি ২০ সালের ডিসেম্বরে। এবারের পদোন্নতির জন্য ১৮ ও ২০তম ব্যাচের কর্মকর্তাদের বিবেচনা করা হয়েছে। এ ছাড়া সিনিয়র ব্যাচের কয়েকজন কর্মকর্তাও আছেন তালিকায়। এর আগে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে ১১ জন, ২০১৯ সালের অক্টোবরে আটজন, ২০১৮ সালের নভেম্বরে ১৭ জন, ২০১৭ সালের অক্টোবরে ১৫ জন এবং ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে ১৮ জনকে ডিআইজি পদে পদোন্নতি দেয় সরকার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com